মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

মনপুরা উপজেলার মানচিত্র

মেঘনা বিধৌত পলি মাটির আদরে লালিত ভোলা জেলার পুরনো দ্বীপগুলোর অন্যতম দ্বীপ উপজেলা মনপুরায় প্রায় লক্ষাধিক লোকের বসবাস। দ্বীপটি ভোলা জেলার সবচেয়ে পুরনো দ্বীপ হলেও এতে বসতী গড়ে ওঠে প্রায় ষোড়স শতাব্দীতে বলে মনে করছেন ইতিহাসবিদগন। ধারনা করা হচ্ছে প্রায় ১৬০০ খ্রীষ্টাব্দে এখানে সর্বপ্রথম পর্তুগিজ জলদস্যুরা আস্তানা গেড়ে বসতী গড়ে তুলেছিল। আর্তসামাজিক ও মানবিক বিবর্তনের ফলে ধীরে ধীরে চলে যেতে থাকে পর্তুগীজ জলদস্যুরা। পরবর্তী সময়ে প্রায় ১৮০০ শতাব্দীতে মানুষ যখন আবিষ্কারের নেশায় মগ্ন ঠিক তখনই এই মনপুরা দ্বীপে আস্তে আস্তে জেলার স্থানীয় মানুষের বসবাসের আবাস গড়ে ওঠে। সেই থেকে অদ্যাবদী দুই শতক পেরিয়ে আধুনিক সভ্যতার যুগে প্রতিষ্ঠিত মনপুরা উপজেলা। এই দ্বীপে মানুষ বাড়ার সাথে সাথে বেড়েছে দ্বীপবাসীর নিত্যনতুন চাহিদা। আর মানুষের  দৈনন্দিন চাহিদা পুরনে মানুষ জড়িয়ে পড়ছে নতুন নতুন পেশার সঙ্গে।  জিবিকা নির্বাহের জন্য আধুনিক বিশ্বের বৃহৎ অংশ জুড়ে রয়েছে ব্যাবসা-বানিজ্য। এই পেশা থেকে এখন মনপুরার মানুষ ও পিছিয়ে নেই। অন্যান্য পেশার পাশাপাশি মেঘনা বেষ্টিত দ্বীপ উপজেলা মনপুরার মানুষের একটি বৃহৎ অংশ ব্যাবসার সাথে জড়িত। দেশের অন্যান্য অঞ্চলের মানুষের ন্যায় মনপুরার মানুয়ের ব্যবসা ও রয়েছে স্ববিস্তারে। মনপুরা এই দেড় লক্ষ জনগোষ্ঠির প্রায় ৮০ ভাগ মানুষই ব্যাবসার সাথে জড়িত। তবে এর ধরন একটু আলাদা আলাদা।...

ছবি